এইভাবেই শ্রেণীবিভাগ চলতে থাকে

#ঘটনা_একঃ

- ভাই আপনি কি মুসলমান?
- হ, মুসলমান।
- সুবানাল্লাহ, আমিও মুসলমান। আপনে শিয়া নাকি সুন্নি?
- সুন্নি।
- আলহামদুল্লিহ! আমিও সুন্নি। কোন মাজহাবে আছেন?
- হানাফি
- মাশাল্লাহ, আমিও হানাফি। আপনি সৌদি নাকি উপমহাদেশীয় হানাফি?
- উপমহাদেশীয়
- মারহাবা, আমিও উপমহাদেশীয়। আপনে শরিয়তি নাকি মারফতি?
- শরিয়তি
- জাযাকাল্লাহু খায়রান। আমিও শরিয়তি। আপেনে চরমোনাই নাকি আটরশি?
- চরমনাই
[এইভাবেই শ্রেণীবিভাগ চলতে থাকে]

#ঘটনা_দুইঃ

- ভাই আপনে কি হিন্দু?
- হ, ভাই সনাতনী হিন্দু।
- আমিও হিন্দু। আপনি বৈষ্ণব, নাকি শাক্ত?
- বৈষ্ণব।
- হরে কৃষ্ণ আমিও বৈষ্ণব। আপনি গৌড়ীয়, নাকি চৈতন্য বৈষ্ণব?
- চৈতন্য বৈষ্ণব।
- হরে কৃষ্ণ। আমিও চৈতন্য বৈষ্ণব।
- তো আপনি কি ইস্কনে নাকি সাধারণে?
- ইস্কনে
- হরে কৃষ্ণ, দেশের ইস্কন করেন নাকি বিদেশি ইস্কন করেন?
- দেশি।
- হরে কৃষ্ণ আমিও দেশি
[এইভাবেই শ্রেণীবিভাগ চলতে থাকে]

#ঘটনা_তিনঃ

- ভাই আপনি কি বৌদ্ধ?
- হ, ভাই বৌদ্ধ
- কোন যানে আছেন, হীনযান নাকি মহাযান?
- হীনযান বৌদ্ধ নিকায়
- সাধু, সাধু। আমিও হীনযানি। আপনে শ্রীলঙ্কান নাকি বঙ্গীয়?
- বঙ্গীয়
- মেত্তা করুণা মুদিতা উপেক্ষা, আমিও বঙ্গীয়। আপনি বড়ুয়া নাকি মারমাগ্রী?
- বড়ুয়া।
- সব্বে সত্তা সুখীতা ভবন্তু। আমিও বড়ুয়া। আপনি সংঘরাজ নাকি সঙ্ঘনায়ক?
- সংঘরাজ।
- বল বুদ্ধ বল। আমিও সংঘরাজ দলে।
- তো আপনে কি বনভান্তেবাদী, নাকি উছালা মার্মা?
- বনভান্তেবাদী
- সাধু সাধু। আমিও...
[এইভাবেই শ্রেণীবিভাগ চলতে থাকে]

#ঘটনা_চারঃ

- ভাই আপনে কি নাস্তিক
-হ নাস্তিক।
-কোন ধরণের নাস্তিক? যুক্তিবাদী নাস্তিক, পাতি নাস্তিক, বিখ্যাত নাস্তিক, অখ্যাত নাস্তিক, নেতা নাস্তিক, কর্মী নাস্তিক, পীরের চেলা নাস্তিক, বিপ্লবী নাস্তিক, খাঁটি নাস্তিক, খচ্চর নাস্তিক, খোছাইন্না নাস্তিক, আধ্যাত্মিক নাস্তিক, কট্টর নাস্তিক, ল্যাদাইন্না নাস্তিক, চুপা নাস্তিক, লাইক পাগল নাস্তিক, চোরা নাস্তিক, ভীতু নাস্তিক, আধা-পাগল নাস্তিক, গুণ্ডা নাস্তিক, ছবির হাটের নাস্তিক, ফেসবুকার নাস্তিক, ব্লগার নাস্তিক, রোজাদার নাস্তিক, রিভার্স নাস্তিক, ঘাড় টেরা নাস্তিক, ল্যাংটা নাস্তিক, আবাল নাস্তিক, লুল নাস্তিক, স্বঘোষিত অর্ধ নাস্তিক, ভন্ড নাস্তিক, ফাজিল নাস্তিক, মিষ্টিকথার নাস্তিক, নবী নাস্তিক, আল্লামা নাস্তিক , কপি পেষ্ট নাস্তিক, রেফারেন্স নাস্তিক, বামপন্থি নাস্তিক, জামাতি নাস্তিক, জঙ্গি নাস্তিক, আসিফবাদী নাস্তিক, সাম্প্রদায়িক নাস্তিক ট্যাগানো নাস্তিক, স্ক্রীনশট নাস্তিক, মুক্তমনা, মুক্তগাধা, মুক্তবাল, লোক দেখাইনা নাস্তিক, ছাগু নাস্তিক, এসাইলম সিকার নাস্তিক, নাকি হুদাই নাস্তিক? আপনে কোনটা বলেন?
-ভাই এতো টাইপ শুইনা নিজে কোন টাইপের নাস্তিক ভুইলা গেছি
( এভাবে শ্রেনী বিভাগ চলতে থাকে)

#ঘটনা_পাঁচঃ

প্রকৃতির সব থেকে বুদ্ধিমান প্রাণীর নাম মানুষ। তবে মনে হয় এই মানুষ ছাড়া আরও দু চারটা প্রাণী বুদ্ধিমান হওয়া উচিত ছিল। তখন আলোচনাটা হতে পারতো,
- ভাই, আপনে কোন প্রাণী?
- মানুষ।
- কি বলেন!!! আমিও মানুষ।
- আহা, অনেকদিন পর আরেকজন মানুষ দেখে ভালো লাগলো।
- আশে পাশে দেখি প্রচুর ভেড়া। শুধু আপনি আর আমি দুর্ভাগা মানুষ। কি দুর্ভিক্ষ এলো দুনিয়ায়, চারপাশে শুধু বুদ্ধিমান ভেড়াই ভেড়া। মানুষের বড় অভাব....
[সংগৃহীত]

জ্ঞানবিমুখ ছিন্নভিন্ন মুসলিম জাতি

১১৮বছরে মাত্র ১২জন মুসলিম নোবেল পুরষ্কার পেয়েছে।
৫৭টি মুসলিমপ্রধান দেশের মোট বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়েও আমেরিকায় বিশ্ববিদ্যালয় সংখ্যা বেশি।
 মুসলিমপ্রধান দেশ সমুহের জাতীয় আয় আসে প্রাকৃতিক সম্পদ থেকে। অর্থাৎ উপরওয়ালা প্রদত্ত রিজিক থেকে। কারন মুসলিমপ্রধান দেশগুলো আল্লাহর উপর ভরসা করে বাজেটের অর্থেক টাকা স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রনালয়ের নামে দলীয় নেতাকর্মীদের হাতে তুলে দেয় কিন্তু অমুসলিম দেশসমুহ জাতীয় আয়ের সিংহভাগ এবংকি কোম্পানীগুলোকেও বাধ্যতামূলকভাবে লাভের একটা অংশ বৈজ্ঞানিক গবেষনায় খরচ করতে হয়। তাই ইসরায়েলের মত ছোট্ট দেশেও ৯০হাজারের অধিক পিএইচডি ধারী বসবাস করে। মাত্র দেড় কোটি মানুষ, অথচ এই পর্যন্ত নোবেল পেয়েছে ১৭৯জন ইহুদি।
.
আমরা দাম দিয়েছি ক্রিকেটকে আর রাজনীতিকে। তাই মুসলমানদের আইকন এখন নারীলিপ্সু ক্রিকেটার এবং অসৎ রাজনীতিবিদরা। আমেরিকার প্রেসিডেন্টও স্বপ্ন দেখে হার্বার্ড এর শিক্ষক হবার, আর আমাদের তরুনরা স্বপ্ন দেখে বারাক ওবামা আর রোনালদো হবার।
.
মুসলিমরা আজ শিয়া-সুন্নি, হানাফী-ওয়াহাবীতে বিভক্ত। অথচ ইহুদীদের ৫০ এর অধিক গ্রুপ একত্রিত হয়ে ইসরায়েল নামক জারজ রাষ্ট্রকে অর্থ আর ক্ষমতা দিয়ে টিকিয়া রেখেছে। কিন্তু ৫৭টি মুসলিম দেশ কখনোই একত্রিত হয় না। তাই কাশ্মির, ফিলিস্তিন, চেচনিয়াও স্বাধীন হয় না। যখন ইহুদীরা CNN, ESPN, Fox News, Sky News, Times এর মত মিডিয়া গড়তে ব্যস্ত। আমরা তখন আল জাজিরা, আমার দেশ, দিগন্ত টিভি বন্ধ করতে ব্যস্ত। ইহুদীরা যখন কাল মার্ক্সস, আইনস্টাইন, বব ডিলান কিংবা রুপার্ট মারডকের মত জায়নবাদীদের বিশ্বব্যাপী আইকন বানাচ্ছে। আমরা আব্দুল কাদির, জাকির নায়েক কিংবা ইউসুফ কারজাভীর মত মেধাবীকে বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসী বলে প্রচার চালাই।
.
মুসলমানরা আজ জ্ঞানের রাজ্য এবং গবেষনার রাজ্য থেকে অনেকদুরে। তারা আজ রফে ইয়াদাইন এর মত ছোটখাটো বিষয় নিয়ে বহুভাগে বিভক্ত।
.
তাই জ্ঞানবিমুখ ছিন্নভিন্ন মুসলিম জাতি আজ সংখ্যায় ২০০কোটি হয়েও; উচ্চশিক্ষিত এবং ঐক্যবদ্ধ দেড় কোটি ইহুদির কাছে পরাজিত। লক্ষ লক্ষ ফিলিস্তিনিকে নিজ ভুমি থেকে বিতাড়িত করে ইহুদীরা ইসরায়েল নামক রাষ্ট্র বানায়। কোটি কোটি টাকা খরচ করে গবেষনা আর মেধাবীদের মূল্যায়নে। আর আমরা নিজেরা নিজেরা কামড়াকামড়ি করে ফিলিস্তিনিদের অসহায় কান্না দেখি।

>> কালেক্টেড পোস্ট <<<

আপনি প্রস্তুত তো???

"ফজরের নামাজে একদম উঠতে পারিনা, কী যে করি! আল্লাহ নিশ্চয়ই মাফ করবেন, তিনি তো ক্ষমাশীল।

আপনি যদি এমনটি ভেবে থাকেন, তবে একটু কষ্ট করে প্রশ্নগুলো মিলিয়ে দেখুন: আপনার অফিস যদি সকাল ছ'টা/ সাতটায় হয়, এ পর্যন্ত কয়দিন ঘুমের কারণে অফিসে যেতে দেরি করেছেন? আপনি যদি স্কুল, কলেজ কিংবা ভার্সিটির স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন; তবে সকালবেলায় হয়েছে, এমন কয়টি পরীক্ষা জীবনে ঘুমের কারণে মিস করেছেন? আপনি যদি বাস/ট্রেন/প্লেনে সফর করে থাকেন দূরপথে, জীবনে কতবার টিকেট কেটেও ঘুমের কারণে সকালের বাস/ট্রেন/ফ্লাইট মিস করেছেন?

আপনার যদি এমন কোন অসুখ হয়ে থাকে, যার জন্য ডাক্তার দেখাতে কিংবা টেস্ট করাতে ভোরবেলা লাইন দিতে হয়েছে, ঘুমের কারণে মিস করেছেন, এমন কতবার হয়েছে? .. .. .. প্রশ্নগুলোর কোনটির উত্তর যদি এমন হয়, যে আপনি অনেকবার করেছেন, তাহলে আপনার দাবি সত্য। যদি বিপরীত হয়ে থাকে, তবে আপনি ফজরের নামাজে ওঠার জন্য চেষ্টা করেও পারেননা, এই দাবি মিথ্যে, চূড়ান্ত মিথ্যে। এবার আরেকটি প্রশ্ন মিলিয়ে নিশ্চিত হউন: একটা পরীক্ষা, অফিস, ফ্লাইট, মিস করার জন্য আপনার মন কতখানি খারাপ হয়েছে? সারাদিন কতবার মনে পড়েছে ঘটিনাটি? কতবার আফসোস করেছেন? কতখানি সতর্কতা অবলম্বন করেছেন, যে জীবনে আর এমন ভুল দ্বিতীয়বার করবেন না? পরের বার কতজনকে বলে রেখেছেন ডেকে দেয়ার জন্য? মোবাইলে কয়টি এলার্ম দিয়েছেন সতর্কতা হিসেবে? .. .. ..
এবার ভেবে দেখুন, এক ওয়াক্ত ফজরের নামাজ মিস গেলে আপনার কতটুকু খারাপ লেগেছে? দিনে কতবার মনে পড়েছে? কতবার আফসোস করেছেন? পরের দিনের জন্য কতখানি সতর্কতা অবলম্বন করেছেন? কয়টি এলার্ম দিয়েছেন? কয়জন নামাজীকে বলে রেখেছেন ডেকে দেয়ার জন্য?? .. .. ..
 দুই গ্রুপের উত্তরে যদি আকাশ পাতাল ফারাক হয়, তবে তার মানে এটাই দাঁড়ায় যে: "আপনি ফজরের নামাজকে এখনো আপনার অফিস, পরীক্ষা, ফ্লাইট, কিংবা চিকিৎসার সমান গুরুত্ব দিতে পারেননি(অথচ হাদীসে এসেছে, ফজরের শুধু দুই রাকাত সুন্নাত নামাজের মূল্যই গোটা দুনিয়া আর এর মধ্যে যা কিছু আছে সমস্ত কিছুর চেয়ে বেশি, সেখানে ফরযের মূল্য কতখানি?) ; আপনি অফিসের বস, শিক্ষক, যতখানি ভয় পান কিংবা ভালোবাসেন, আপনার সৃষ্টিকর্তা, রিযিকদাতা, জীবনদাতা, মৃত্যুদাতা, মহান আল্লাহ রাব্বুল 'আলামীনকে ততখানি ভয় পেতে কিংবা ভালোবাসতে এখনো পারেননি।
 তাহলে প্রস্তুত থাকুন, ওয়াল্লাহি, আপনাকে আল্লাহর সম্মুখে অবশ্যই দণ্ডায়মান হতে হবে, আপনার প্রতিটি মিথ্যে অজুহাতের চুলচেরা বিশ্লেষন রাজাধিরাজের কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে আপনাকেই করতে হবে। আপনি যদি দুনিয়াবি একটা এক্স্যামের জন্য দিনের পর দিন মাঝরাত্রি পর্যন্ত জেগে পড়েন আর ফজরের সময় ঘুমিয়ে থাকেন, অফিসের বসের ভয়ে ঠিক ঠিক অফিসে পৌঁছেন, কেবল নামাজের খাতায়ই এবসেন্ট মার্ক পড়তে থাকে, তবে কেবল শ্বাসটুকু বন্ধ হওয়ার জন্য অপেক্ষায় থাকুন, কাঠগড়ায় আপনাকে দাড়াতেই হবে। .. .. ..
আপনি প্রস্তুত তো??? আল্লাহ আমাকে সহ সকলকে বুঝার তওফিক দান করুন,আমিন।